চিন্তা

মাঝে মাঝে এমন একটা পরিস্থিতিতে পড়তে হয়, খুব বিরক্তিকর।

খুব হতাশাজনক। খুব বেশি কষ্টদায়ক।

আপনি চেষ্টা করে যাচ্ছেনই যাচ্ছেন, পজিটিভভাবে সামগ্রিক পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য। আপনি নিজেকে বুঝতে দিতে চােইছেন, যাইহোক না কেন, এরপর নিশ্চয় কল্যাণ আছে। আল্লাহ আপনাকে ভালো কিছু দেওয়ার জন্য এই কষ্টে ফেলেছেন। আর মাত্র ক’টা দিন। আর কয়েকটা ঘন্টামাত্র।

কিন্তু দেখা গোলো, একটা সমস্যা সলভ হতে না হতেই আরেকটা সমস্যা এসে উদয় হলো। এই সমস্যাটা আপনি আরো বেশি পজিটিভলি এপ্রোচ করলেন। তারপর আরেকটা এসে হাজির। একসময় আপনি ঠিকই হার মেনে বসেন। আপনিও বলে ফেলেন, যথেষ্ট হয়েছে। এসব আর না। মরুক গা, যা হবার হবে।

আর যখন আপনি পুরোপুরি হতাশ হয়ে পড়েন, তখন আপনি শর্টকাট খুজেন। আপনি তখন সহজ কিছুর দিকে হাত বাড়ান। আপনি চান একটা মানসিক রোমান্টিসিজমে বাস করতে যেখানে আপনার কোনরকম সমস্যা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

আপনি তখন দুনিয়ায় মজে যান। আপনি তখনর দুনিয়ার আনন্দ-ফূর্তির মাঝে জীবনকে বিলিয়ে দেন। সাময়িক আপনি আপনার চারপাশের জীবন নিয়ে বেখবর থাকেন। কিন্তু তারপর………….?

কিন্তু তারপরও কি আপনার জীবনের সমস্যাগুলো সলভ হয়? আপনার জীবন কি তখন সমস্যামুক্ত থাকে?

অবশ্যই আপনার জীবন সমস্যামুক্ত থাকে না। বরং আপনার দৃষ্টিভঙ্গিতে সমস্যা এড়িয়ে থাকার মানসিকতা সৃষ্টি হয়। আপনি ভাবতে থাকেন, হোক না জীবন এমন। থাক না জীবন এমন।

কখনও কি ভেবেছেন, কেন আপনার জীবনে সমস্যার পরে সমস্যা আসছে?

আসলেই কি এই সমস্যাগুলো আপনার জীবনে আল্লাহর পক্ষ থেকে আসছে?

এই সমস্যাগুলো কি আসলেই আপনার সার্বিক চেষ্টা থাকার পরে তৈরী হয়েছে?

আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা বলেন,

لاَ يُكَلِّفُ اللّهُ نَفْسًا إِلاَّ وُسْعَهَا

আল্লাহ কাউকে তার সাধ্যাতীত কোন কাজের ভার দেন না

لَهَا مَا كَسَبَتْ وَعَلَيْهَا مَا اكْتَسَبَتْ

সে তাই পায় যা সে উপার্জন করে এবং তাই তার উপর বর্তায় যা সে করে।

رَبَّنَا لاَ تُؤَاخِذْنَا إِن نَّسِينَا أَوْ أَخْطَأْنَا

হে আমাদের পালনকর্তা, যদি আমরা ভুলে যাই কিংবা ভুল করি, তবে আমাদেরকে অপরাধী করো না।

رَبَّنَا وَلاَ تَحْمِلْ عَلَيْنَا إِصْرًا كَمَا حَمَلْتَهُ عَلَى الَّذِينَ مِن قَبْلِنَا

হে আমাদের পালনকর্তা! এবং আমাদের উপর এমন বোঝা অর্পণ করো না, যেমন আমাদের পূর্ববর্তীদের উপর অর্পণ করেছ,

رَبَّنَا وَلاَ تُحَمِّلْنَا مَا لاَ طَاقَةَ لَنَا بِهِ

হে আমাদের প্রভূ! এবং আমাদের দ্বারা ঐ বোঝা বহন করিও না, যা বহন করার শক্তি আমাদের নাই।

وَاعْفُ عَنَّا وَاغْفِرْ لَنَا وَارْحَمْنَا أَنتَ مَوْلاَنَا فَانصُرْنَا عَلَى الْقَوْمِ الْكَافِرِينَ

আমাদের পাপ মোচন কর। আমাদেরকে ক্ষমা কর এবং আমাদের প্রতি দয়া কর। তুমিই আমাদের প্রভু। সুতরাং কাফের সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে আমাদের কে সাহায্যে কর। [সুরা বাকারা: ২৮৬]

উপরের আয়াতটি থেকে আমরা বেশ কিছু শিক্ষা পাই।

আল্লাহ তায়ালা কখনই আমাদের উপর বোঝা চাপিয়ে দেন না। তিনি কখনও আমাদের বিপদে ফেলেন না। বস্তুত আমরা যাকিছু করেছি, তার কর্মফল দেন মাত্র। যখনই আমরা কোন বিপদে পড়ি, তখন আমাদের মাথায় রাখতে হবে আমরা অতীতে এমন কী কী কাজ করেছি, যা এই বিপদ ডেকে এনেছে।

আমাদের অভ্যাস, কাজ, আমাদের জীবন সংক্রান্ত দৃষ্টিভঙ্গি আমাদের বিপদের মাঝে এনে দাড় করায়।

আবার কিছু কিছু পরিস্থিতি এমন হয়, যা আসলেই বিপদ না। আমরা চাইলেই এসবের সমাধান করতে পারি।

এরুপ পরিস্থিতিতে আমাদের একটা সাধারণ প্রতিক্রিয়া হলো, “ও আল্লাহ! আমি এখন কী করবো?

আমি তো কিছুই বুঝতে পারছি না। কোনদিক দিয়ে শুরু করবো?”

ভাই!

থামেন।

কি করবো না ভেবে, কিভাবে করবো এটাই ভাবেন।

প্রথমে আপনার সমস্যাকে বিশ্লেষণ করুন। এই সমস্যার সমাধানে আপনার করণীয় কতটুকু তা ভাবুন। অন্যকোন ব্যক্তি বস্তু বা প্রতিষ্টানের সহযোগীতা দরকার কিনা ভাবুন। আপনি কিভাবে সমস্যার সমাধান করতে হবে তা বুঝে যাবেন।

সবচেয়ে বড়কথা, বিপদে কখনো হতাশ হবেন না। বিপদ আপনাকে শুধরানোর জন্য, আপনার চিন্তাগত সমৃদ্ধি আনার একটি উত্তম মাধ্যম।

যদি হতাশ হন, তাহলে আপনার মনে একটি ভয়েড(শূন্যস্থান) সৃষ্টি হবে। এই শুণ্যস্থানে শয়তান গেড়ে বসবে। হতাশা সবসময় শয়তানের বাহন।

সর্বোপরি বেশি বেশি আল্লাহর কাছে চাইবেন। তিনি যেনো আপনাকে এমন বোঝা চাপিয়ে না দেন, যা আপনি বইতে পারবেন না।

আল্লাহর  কাছে আন্তরিক স্বীকৃতিসহ তওবা করুন। তিনি অবশ্যই আপনাকে সাহায্য করবেন।

ফি আমানিল্লাহ।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s